মোটা মেয়ে বিয়ে করার সুবিধা

বর্তমান যুগে স্লীম মেয়ে সবার পছন্দ,সবাই চায় বৌ হিসাবে একটা স্লীম মেয়েকে,তাই মেয়েরাও নিজেদের স্লীম রাখার চেষ্টা করে।

রোগা হবার জন্য আজকালকার মেয়েরা কত কিনা করে, ডায়েট থেকে শুরু করে জিম কিন্তু এটা ভুলে যায় সৌন্দর্য্যতা থাকে মানুষের মনের ভেতরে, শারীরিক বাহ্যিকতাতে নয়।

কেউ রোগা মেয়ে পছন্দ করে আবার কেউ মোটা মেয়ে পছন্দ করে। কিন্তু অনেকেই জানেনা মোটা মেয়ে বিয়ে করার সুবিধা, রোগা মেয়েদের তুলনায় মোটা মেয়েরা বেশি সুন্দরী হয়।

আর রোগা মেয়েদের থেকে মোটা মেয়েদের মন অনেক বেশি ভালো হয়। মোটা মেয়েরা সুখে সংসার করতে জানে আর সবাইকে ভালো রাখতে জানে।

এরা মনের দিক থেকে খুব সরল হয়। এরা নিজের পাশাপাশি অন্যদেরকে সুখী করতে জানে। মোটা মেয়েরা খুব বুদ্ধিমতি ও আবেগী হয়,তাই এদের বিয়ে করে খুব সহজেই সুখী হওয়া যায়। এরা শুধু নিজের কথা ভাবেনা, সকলের কথা ভাবে। সবসময় নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকে না,অন্যকে যথেষ্ট সময়ও দেয়।

মোটা মেয়েরা শুধু নিজের কথা ভাবেনা, স্বামী ও পরিবারের কথাও ভাবে। স্বামীকে যথেষ্ট সম্মান করে, শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের ভীষণ ভালোবাসতে জানে। সবাইকে খুব সুখী রাখে। কিন্তু রোগা মেয়েরা নিজেকে নিয়েই সর্বদা ব্যস্ত থাকে। নিজের ফিগার ঠিক রাখার দিকেই সারাদিন ধ্যান দেয়।

মোটা মেয়েরা শুধু নিজের কথা ভাবেনা, স্বামী ও পরিবারের কথাও ভাবে। স্বামীকে যথেষ্ট সম্মান করে, শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের ভীষণ ভালোবাসতে জানে। সবাইকে খুব সুখী রাখে। কিন্তু রোগা মেয়েরা নিজেকে নিয়েই সর্বদা ব্যস্ত থাকে। নিজের ফিগার ঠিক রাখার দিকেই সারাদিন ধ্যান দেয়।

মোটা মেয়েরা অনেক বেশি বুদ্ধিমতী হয়। অনেকে মনে করে রোগা মেয়েরা বেশি বুদ্ধিসম্পন্ন হয়, কিন্তু এই ধারণা ভুল। মোটা মেয়েদের মধ্যে ক্লান্তি কম থাকে। তারা সব কাজ খুব তাড়াতাড়ি করে ফেলে। খুব আনন্দের সহিত সব কাজ খুব হাসি মুখে করে। কেউ বিপদে পড়লে যেকোনো উপায়ে মোটা মেয়েরা সবকিছুর সমাধানও করতে পারে।

মোটা মেয়েরা রান্নার দিক থেকে পারদর্শী হয়। এরা যেমন নিজে খেতে ভালোবাসে, উল্টোদিকের মানুষটাকেও নিজের হাতে রান্না করে খাওয়াতে ভালোবাসে। মোটা মেয়েদের রান্নার প্রতি একটা টান থাকে,তাই পরিবারের লোকজনকে নিত্য নতুন রান্নার পদ খাইয়ে আনন্দ পায়। মোটা মেয়েরা অন্যকে খাইয়ে আনন্দ পায়। পরিবারের সকলে খেলো কিনা, কেউ অভুক্ত যেন না থাকে পরিবারের, সেই সবদিকগুলিই মোটা মেয়েদের নজর এড়িয়ে যায়না।

রোগা মেয়েদের তুলনায় মোটামেয়েরা একাধিক গুনের অধিকারীনী হয়। যা রোগা মেয়েদের ক্ষেত্রে দেখা যায় না। মোটা মেয়েদের পোষাকীয় প্রাচুর্যতা রোগা মেয়েদের থেকে অনেক বেশি ভালো হয়। মোটা মেয়েরা জানে কোথায় কেমন পোশাক পড়লে তাকে মানাবে। কোন পোশাক পড়লে মানানসই হবে,তা তারা খুবই ভালো নির্বাচন করতে পারে।

রোগা মেয়েদের থেকে মোটা মেয়েরা বেশি সুন্দরী হয়ে থাকে। মেদযুক্ত শরীরে শাড়ি পড়লে পরীর মতো দেখতে লাগে এদের। মোটা মেয়েদের শরীরের বারতি মাংসগুলি পুরুষদের মন কেড়ে নেয়। রোগা মেয়েদের তুলনায় মোটা মেয়েরা তার স্বামীকে আদর বেশি করে। যারফলে স্বামী সর্বক্ষণ তার মোটা স্ত্রীর প্রতি আসক্ত হয়ে থাকে। ফলস্বরূপ দাম্পত্য জীবন সুখের ও মধুর হয়।

বিয়ে করতে গেলে সর্বদা মোটা মেয়েকেই স্ত্রী বানান।আদর যেমন পাবেন, নিত্য নতুন রান্নার করে খাওয়াবে। আবার মায়ের মতো আগলেও রাখবে। তাই সবদিক থেকে মোটা মেয়েরাই শ্রেষ্ঠ।